সর্বশেষ সংবাদ >>

ত্রিপুরা রাজ্যে করোনার ভ্যাকসিন এসে গেছেঃমুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব।

T24X7 প্রতিনিধি12/01/2021TRIPURA

১২ জানুয়ারি স্বামী বিবেকানন্দের ১৫৯ তম জন্মজয়ন্তী। এই দিনটিকে যথাযোগ্য মর্যাদায় শহীদ পালন করল বিজেপি সদর জেলা শহর অঞ্চল কমিটি। বিজেপি সদর জেলা শহর অঞ্চল কমিটির উদ্যোগে রাজধানীর রবীন্দ্র ভবন প্রাঙ্গণ থেকে এক সুবিশাল বাইক রেলির আয়োজন করা হয় এইদিন। এই বাইক রেলির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব, বিজেপি সদর জেলা শহর অঞ্চল কমিটির সভাপতি ডক্টর অলোক ভট্টাচার্য, প্রদেশ বিজেপির সাধারণ সম্পাদক টিংকু রায় সহ অন্যান্যরা। বাইক রেলির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আলোচনা করতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব বলেন স্বামী বিবেকানন্দের জন্মদিন একটি শুভ দিন। আর এই শুভদিনে প্রয়াত হয়েছিলেন প্রদেশ বিজেপির প্রাক্তন সভাপতি সুধীন্দ্র দাশগুপ্ত। স্বামী বিবেকানন্দের চেহারা যেভাবেই কল্পনা করা হোক না কেন সকলের সামনে একটা যুব চেহারা উঠে আসবে। আলাদা একটা উৎসাহ চলে আসে। কিছু করার মানসিকতা তৈরি হয়। মানুষ শ্রেষ্ঠ জীব। মানুষ সবকিছু করতে পারে। খুব কম সময়ের মধ্যে সমগ্র দুনিয়াকে এই রাস্তা দেখিয়ে ছিলেন স্বামী বিবেকানন্দ। দুনিয়াতে কঠিন কোন কাজ নেই। যা কিছু রয়েছে সবকিছু সাধ্যের মধ্যে। কিন্তু তার জন্য পজেটিভ মানসিকতা, বিশ্বাস, নিষ্ঠা ও দায়িত্ববান হতে হবে। এই শব্দগুলি যখন কোন ব্যক্তির জীবনের সাথী হয়ে যাবে তখন সেই ব্যক্তি নিশ্চিত সফলতা পাবে। এই শব্দগুলো থেকে সরে গেলে জীবনে পরাজিত হতে হবে। স্বামীজীর দেখানো পথ অনুসরণ করে দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দেশকে এক নতুন দিশায় এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। শ্রেষ্ঠ দেশ, সমৃদ্ধশালী দেশ, আত্মনির্ভর ভারত গড়ার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন দেশের প্রধানমন্ত্রী। ইতিমধ্যে ত্রিপুরা রাজ্যে করোনার ভ্যাকসিন এসে গেছে। প্রথম দফায় দেশের প্রধানমন্ত্রী ত্রিপুরা রাজ্যের জন্য ৫৬,০০০ ভ্যাকসিন পাঠিয়েছেন। করোনা যখন এসেছিল তখন, ভারতে তেমন কোনো কিছুই ছিল না। কিন্তু দেশের প্রধানমন্ত্রীর পজিটিভিটি মানসিকতার জন্য করোনা হারাতে পারেনি। প্রধানমন্ত্রী ইতিমধ্যেই ঘোষণা করে দিয়েছেন প্রথম দফায় ৩০ কোটি ভেকসিন প্রদান করা হবে বিনামূল্যে। এই করোনা ভ্যাকসিন গ্রহণ করলে কারো কোন ক্ষতি হবে না, তাও স্পষ্ট করে জানিয়ে দিয়েছেন দেশের প্রধানমন্ত্রী। স্বামী বিবেকানন্দের আদর্শকে পাথেয় করে সকলকে সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানান মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব।উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে উপস্থিত সকলকে শপথ বাক্য পাঠ করানো হয়। পরে শুরু হয় বাইক রেলি। স্বামী বিবেকানন্দের ছবি সম্বলিত সাদা টি-শার্ট পরিধান করে শত শত যুবক বাইক নিয়ে এদিনের বাইক রেলিতে অংশগ্রহণ করে। সবুজ পতাকা ণেরে বাইক রেলির সূচনা করেন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব। বাইক রেলিটি এদিন রাজধানীর বিভিন্ন রাস্তার পরিক্রমা করে।